৪৬. কবিতার নাম - সুইসাইড নোট
কবির নাম - সৌমেন বন্দ্যোপাধ্যায় (পীযূষ কবি )


আলোচনা -
জীবন রহস্যময় l বর্ণময় l রসময় l জীবন শুধু সফলতা নয় l বিফলতাও জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ l শুধু হাসির জীবন হালকা l কান্না সেই জীবনকে দেয় গভীরতা l ব্যর্থতার গ্লানি সফলতাকে করে গৌরবান্বিত l সাফল্য ব্যর্থতাকে করে বেদনাময় l সাহিত্য শুধু জীবনের গান গায় না, মৃত্যুর শোকগাথাও রচনা করে l জীবন ও মৃত্যু এক ধ্রুব সত্য l আমরা এর বাঁধন এড়াতে পারি না l আমরা যেটা পারি, জীবনকে করে তুলতে পারি মহৎ l সৎ কর্ম দিয়ে l আমরা মৃত্যুকে বেঁধে দিতে পারি শুধু এই নশ্বর শরীরে l আর তার মধ্যে যে জিয়ন অস্তিত্ব থাকে, সুকর্ম দ্বারা তাকে করে তুলতে পারি অমর l মৃত্যূর  পরেও বেঁচে থাকতে পারি কর্মের জোরে l
কেউ তার নিজের জীবন নিজে সৃষ্টি করেন না l তাই জন্মলাভের সঙ্গে সঙ্গেই আমরা একটা ঋণ নিয়ে চলি l প্রাপ্ত এই জীবনকে সার্থকতার মধ্যে নিয়ে গিয়ে পিতৃ মাতৃ ঋণ শোধের একটা অবকাশ থাকে l
জীবন সুন্দর l মধুময় l জীবনের আগমনে খুশীর স্রোত বয়ে যায় পরিবারে l পরিজনদের আদর ভালোবাসা যত্ন পরিচর্যা শিশুকে ধীরে ধীরে বড়ো করে তোলে l পরের অবলম্বন ছেড়ে সে নিজের পায়ে দাঁড়াতে শেখে l
কিন্তু সব ক্ষেত্রে তা হয় না l কিছু শিশু আকারে তো বড়ো হয়, কিন্তু নিজের পায়ে দাঁড়াতে শেখে না l কখনোই স্বাবলম্বী হতে পারে না l পরনির্ভরতার এই গ্লানি সহ্য হয় না তার l তাই চরম সিদ্ধান্ত নেয় সে l বিবেক দংশন হয় l ঋণখেলাপির যন্ত্রনা তাকে বিদ্ধ করে  l কিন্তু এই প্রতিরোধ তার এই সুন্দর পৃথিবী ছেড়ে   অসময়ে চলে যাবার সিদ্ধান্তকে নড়াতে পারে না l পরাজয় মেনে নেয় সে l "সুইসাইড নোটে" সে উল্লেখ করে তার যন্ত্রনাবিদ্ধ মনের কথা l তার অসহায়তার কথা l তার অনন্যোপায় পরিস্থিতির কথা l
অনাকাঙ্খিত মৃত্যুকে নিয়ে লেখা এই কবিতাটিতে পেলাম জীবনের এই শিক্ষা যে প্রতিটি মানুষের উচিত জীবনে স্বাবলম্বী হয়ে ওঠা l জীবন যখন গড়ে ওঠে, সেই প্রস্তুতি পর্বে বাবা, মা, অন্য পরিজন, শিক্ষক এর পূর্ণ সহযোগ থাক্, কিন্তু একটা পর্বে এসে মানুষকে সব অবলম্বন ছেড়ে নিজের পায়ে দাঁড়াতেই হয়, স্বাবলম্বী হতেই হয় l তখন নতুন করে আর ঋণ নয়, এবার থাকে ঋণশোধের পালা l
জীবনের এই ব্যাকরণ যিনি মেনে চলেন না, অনেক ক্ষেত্রে করুন হঠকারী আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত তাকে নিতে হয় l অমূল্য জীবনের অসহায় পরিণতি হয় l
সুতরাং প্রতিটি মানুষের উচিত, গড্ডলিকা প্রবাহে গা না ভাসিয়ে সময়, সুযোগ, বড়োদের আশীর্বাদকে পাথেয় করে স্বাবলম্বী হবার ব্যাপারে যত্নশীল হওয়া l
প্রিয় কবিকে জানাই এরকম মৃত্যুবিষয়ক জীবনমুখী কবিতা লেখার জন্য অসংখ্য, অসংখ্য শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন l