অভিশপ্ত রাত মৃনাল কণ্টকটায় দু:খের ব্যাপ্ততাকে ছাপিয়ে,
হারিয়ে যেতে ইচ্ছে আমার অতল সবুজের মাধুর্যতায়।
কিম্ভুত কালোরাত অস্ফুট সব আঘাতের তাড়নাকে রেখে,
শুধু তোমার পদধ্বনি শ্রবিবে বলে আনছান এ বক্ষ।
তোমার হাতের স্পর্শ অকাল ভেবে দুঃখভারাক্রান্ত হিম্রিদয়,
বিদায় জানিয়ে দেয় সেই মধুর না’ভোলার ব্যর্থ ভালোলাগাকে।
কিন্তু পলক পড়েই আবার আশা জাগে, ছাড়েনা এ সজাগ নিস্পলক রজ্জু।
তোমার জন্য মাৎলামি, ঋজু পথে হেঁটে চলা, চিরচেনা আবেদন,
ঘুমহীন আঁখির ব্যাকুলতা, অধৈর্যতা, ব্যাথা, না পাবার ভয়, পাবার আকাঙ্খা
সব গুলোকে মিশিয়ে একটা ককটেল বানিয়ে,
বরফের গোলার মত ছুড়ে যদি দিতে পারতাম তোমার দিকে!
আর বলতাম দেখ করেছো কি এ অভাগার
হয়তো ক্ষণিক পরেই পাগল হয়ে যাব আমি
তুমি চেয়ে চেয়ে হয়তো দেখবে, আর বলবে
‘হায়! প্রেমের জন্য কেউ এরাম হয়?’
কিংবা বলবে, কোন সে নিষ্ঠুর যে বোঝেই না উন্মত্ত প্রেম!
সেদিনো হয়তো আমি বলব, এপাগল পাগল, পাগলিটার পাগলামির জন্যে,
কিন্তু হায়, পাগলিটা তো আর মধুর ওই পাগলামি করেইনা
বায়নাকাতোর পাগলাটার সাথে।
========================
১১-১১-২০১৬
ধানমন্ডি, ঢাকা