এই তো আর একটু , কিছুটা সময় ;
খানিকটা দূরত্তের ব্যবধান পার হয়ে
আমি পৌঁছে যাব একেবারে
আমার নিবিড় হৃদয়ের উষ্ণতার কাছে ,
আমার প্রেমের নরম শরীর ছুঁয়ে
আমার গভীরতম ভালোবাসার গভীরে !


তুমি যে আসনে বসে আছ
সেই পূজার বেদীতে
দু’হাঁটু গেড়ে ছড়াবো
বুকের উচ্ছ্বাস শতদল পাপড়িতে !


আমি কতোকাল ,  কতোকাল পরে
আমার দুই চোখের পাতা মেলে
অনিমেষ তাকায়ে রহিব যোগীর মতন
অঢেল প্লাবিত জোছনায় ফুটে থাকা
পেলব শিশির সিক্ত সুবাস ছড়ানো
এক কাঠি রজনীগন্ধায় গাঢ়ো মগ্নতায় !


তোমার নয়নে আমার নয়ন
নির্বাক গাঢ়ো মৌনতায়
ছড়াবে কেবল ফাগুনের রক্তিম উচ্ছ্বাস ;
একটা চড়ুই যেমনি চঞ্চুতে
ছুঁয়ে যায় ঘাস ফুল
তেমন-ই আমি ছুঁয়ে যাব
আমার প্রিয়ার রক্তিম অধর ,
কপোল , চিবুক , নাভিমূল !


আগামী , আগামীকাল
দীর্ঘায়িত পথ চলার ক্লান্তিতে
পৃথিবী যখন ডুবে যাবে নিষুতির কোলে
আমি তখন দাঁড়াব নৈঃশব্দে তোমার মুখোমুখি
আমার নাবিক চেতনায় !