ফুলে ফুলে বাসন্তী সে, মধুপে বন্ধু হে
মউ রসে ভাসে হিয়া, গন্ধি বরণীয়া
মন মাঝে গীতালী যে, সন্ধি মিতালী হে
জনমে জনম প্রিয়া, মত্ত প্রীতি নিয়া
ভরিছে ফুলের ডালি, মগ্ন ঘোরে চলি
কুহুকন্ঠে গানে গানে, স্নিগ্ধ গুঞ্জরনে
হাসিছে কুসুম কলি, তৃপ্ত পত্র তুলি
হেরিয়া তারই পানে, মুগ্ধ সুর মনে ।


এমন মধুর ক্ষণে, স্পন্দ গীত বনে
জলে আঁখি ভরে ওঠে, দিগ্ধ স্মৃতিপটে
বিষে জ্বলন যাপনে, দিনান্তে স্বপনে
উদাসিনী বেলা হাঁটে, কষ্ট ভরা ঠোঁটে
তুমি নেই এই ক্ষণে, কী যে ব্যথা মনে
বিশুষ্ক দিবস কাটে, শূন্য ম্লান বাটে ।


ফিরোজ, গাজীপুর থেকে ঢাকার পথে, ১০/০২/২০১৭