তরজমা


(১)জমিখোর
----------
খরইন খালি আফরবাফর (করেন শুধু হায়হুতাস)
মনোর মাঝে চিন্তা (মনের মাঝে চিন্তা)
মাঝবন্দর জমিনখানাইন (অনেক গুলো জমির মধ্যখনের জমি গুলো)
তাইন কিলা কিনতা। (তিনি কিভাবে কিনবেন)


খত খরি বুঝাইলা তারে (অনেক করে তাকে বুঝিয়েছেন)
হুনাইলা বেশি দামও (শুনিয়েছেন বেশি দাম)
বাড়িত আনিয়া খাওয়াইলা (বাড়িতে এনে খাইয়েছেন)
তবুও লাগের না খামও। (তবুও কোনো কাজে আসতেছে না)


আগে খইলো বেছিলাইবো (পুর্বে বলেছিলো বিক্রি করবে)
আখতা করি না খরে (হঠাৎ না করে)
এখন তারে ডাখলে খাছে (এখন তাকে ডাকলে কাছে)
হে থাখে দূরে দূরে। (সে থাকে দূরে দূরে)


মিডিলিস্টো ফুয়াইন ফাটাইয়া (মধ্য এশিয়ায় ছেলেদের পাঠিয়ে)
টেখাওয়ালা অইগেছে (টাকাওয়ালা হয়ে গেছে)
আগে আইতো ডাখোআখো (আগে যে কোনো প্রয়োজনে ডাকলে আসতো)
এখন দেমাখ বাড়িগেছে।(এখন অহংকার বেড়ে গেছে)


অতা নিয়াও আফরবাফর (এসব নিয়ে হায়হুতাস)
যায় তানোর হারাদিন (যায় তার সারাদিন)
খইবা খালি বদলিছে দিন (বলেন শুধু বদলেগেছে দিন)
আগে গেছে বালাদিন। (আগে চলেগেছে ভালো দিন)


(২)হড়ি বউ (শাশুড়ি বউ)
------------------------
হারাদিন খেটখেট (সারাদিন বকবক)
বউ আর হড়িয়ে (বউ আর শাশুড়িয়ে)
সম্পর্ক অলা যেন (সম্পর্ক এরকম যেন)
হাফ আর ছড়িয়ে। (সাপ আর ছড়ি যেরকম)


ঘুম থাকি উঠিয়াও (ঘুম থেকে উঠেই)
খেটখেট শুরু অয় (বকবক শুরু হয়)
হড়িয়ে এখান খইলে  (শাশুড়িয়ে এক কথা বললে)
দুইখান বউ খয়।(দুই কথা বউ বলে)


ভাত রান্দলে ফেড়া খেনে (ভাত রান্না করলে নরম কেন)
ছালমো লবন খম (তরকারিতে লবন কম)
দুইখতা হুনাই দিলে (দু'কথা শুনিয়ে দিলে)
শুরু অয় মাততম। (শুরু হয় মাত্তম)


বিয়ানে বউয়ে খান্দে (সকালে বউ কান্না করে)
রাইত খান্দে হড়িয়ে (রাত্রে কান্না করে শাশুড়ি)
হড়ি বউর চোখের ফানি (শাশুড়ি আর বউর চোখের পানি)
নালা অর গড়িয়ে।(নালা হচ্ছে গড়িয়ে)


কর্তৃপক্ষের কাছে জানতে চাই, আমি কি এরকম কবিতা পোস্ট দিতে পারবো ? কর্তৃপক্ষ না করে দিলে আমি আর পোস্ট দেব না।