চাই না কিছুই আর।
চাই যে শুধুই বাঁচার অধিকার।


কিন্তু ওসব জানোয়ারে
বাড়ায় থাবা বারে বারে,
পিশাচ হাসি আড়াল করে
আর্তের চিৎকার!
ডাইনী বুড়ির আঁচল তলে
দিনে দিনে বেড়ে চলে
শেয়ালমুখো মড়াখেকো
শয়তান নচ্ছার।
সাথে রাক্ষসীও নাচে,
নাচে শকুন যতো আছে,
তাদের উদ্বাহু নাচ সব জ্বালিয়ে
সব করে ছারখার!


মানুষ থেকে কেউ পশু হয়,
কেউ বা ভয়ে চুপ করে রয়,
কেউ আসে না বুক পেতে তাও
করতে প্রতিবাদ।
কেউ বা আছে এসব থেকে
আখের গুছায় স্বার্থ দেখে,
পেট ভরে, তাও মিটে না তার
মেরে খাবার সাধ।
সবাই আছে যে যার তালে,
সব মিলিয়ে এ গোলমালে
দিনে দিনে রসাতলে
দেশ হলো বরবাদ!


মানুষ থেকে টাকাই দামী,
টাকাই প্রভু, টাকাই স্বামী,
টাকার পিছে ছুটে সবাই
চোখ বুঁজে দিনরাত।
জ্ঞান কিংবা নীতির কথা?
বোকার প্রলাপ, ভুলের প্রথা,
ভালমন্দের হিসাব যে আজ
অচল ধারাপাত।
ধূর্তেরা তাই সুযোগ পেলে
মনের সুখে বিবেক ফেলে
স্বার্থ এবং অর্থ লোভে
বাধায় যে সংঘাত।


এর মাঝে হায় আজও যারা
বোকা, এবং মানুষ, তারা
চাই না কিছুই আর।
চাই যে শুধুই বাঁচার অধিকার।


(রচনাকালঃ ১ জানুয়ারী ২০১৩ ইং)