ঘুরে-ফিরে বারেবারে কে জানি গো চিৎপুরে
ইতি-উতি ছায়া ফেলে উঁকি মারে মনোঘরে
সুরভীর সাজি হাতে সংগোপনে ডাকে ইশারায়
কী ছলে সে চিড়িয়া কাড়ে মন কিসের মায়ায়?


অদৃশ্য সাঁকোটি বেয়ে আসে যে সে হৃদয় ছায়ায়
মুঠো ভরা রোদ নিয়ে পূর্ণ আকাশ ভালোবাসায়
বিকশিত যৌবনে এসো হে নিঃসীমের আঙ্গিনায়
ছলকে উঠা মধুর আবেশ ঢেউয়ে ভেঙে না যায়।

আসা যাওয়ার পথের মাঝেই চকিতে দেখা হলে
হৃদয়ের সরোবরে ছায়া ফেলো লুকোচুরির ছলে।
মন উদ্বেল হৃদ-কাড়া মধুক্ষরা মায়াবী রাগিণী
কুহুধ্বনি কোকিলার শুনতে চায় মন-মোহিনী।


মন তো বোঝে না কিছু ধায় তবু পিছু পিছু
আশার শিখাটি জ্বেলে পথ ভাঙে উঁচু-নিচু?