লজ্জাবতী ভোর আজও তার ঘোমটা সরিয়ে
ঠিক এসে দাঁড়িয়েছে আমার জানালার গা ঘেঁষে,
আমি চুপচাপ ওর তুলতুলে স্নিগ্ধতা ছুঁয়ে দেখি,
ছুঁয়ে দেখি ওর মসৃণ পেলবতা।
লজ্জা বস্ত্র হরণ কারিনী;
পূবে তার রিনিঝিনি,
লাজ ভাঙ্গা ভোর গড়াবে প্রহর।
আবার সময়ের হাত ধরে শ্যামল বর্ণ সাজে
সেজে উঠবে প্রকৃতি,
নিষ্কলুষ আঁধারে ঢেকে যাবে আলোকিত পরিধি।
আসা যাওয়ার বলয় চক্রে এই তো পৃথিবী।
কখনো রাত কখনো দিন,
সুন্দরের কাছে কত ঋণ;কত ঋণ।