শোলার বেড়া ছনের ছাউনি
সবুর মিঞার ঘর,
নিত্যদিন বাতাসে তাহা
করে নড়-বড়।


ভয় কি তাতে? আসুক রাতে
কালবৈশাখী  ঝড়,
খোদার দয়া আছে সদা
আমারই উপর।


পুরানো এক চৌকি পাতানো
বিছানাপত্তরে খেড়!
এ মৌসুমে ধান উঠেনি
খালিই আছে বেড়।


মাইনা পায়নি, হাটেও যায়নি
ঘরে আছে ক'টা বেগুন,
ভর্তায় মরিচ পেঁয়াজ মাখছে ঠিকই
অনটনের চাপে পড়ছে নুন।


রক্তচোষা হায়নার কাছে
বাড়ছে সুদের দেনা,
দৈন্যদশা আর হতাশা
নিত্য দিচ্ছে হানা।


তবুও ভরপেট খাইছে সবুর
নিয়ে তার স্বজন,
সোনার বাংলায় অনেক আছে
এমন মানিক রতন।


স্বাধীন বাংলায় এখনো তারা
যুদ্ধ করছে নিত্য!
হার মানবে কবে তাদের কাছে?
দৈন্য নামের দৈত্য...।।