অতিসার  শরীরে  বহুদূরের পথ হেঁটে
দন্ডে  দন্ডে  প্রকৃতির  নিদারুণ  ডাকে
রুগ্ন শরীর  আর ও বেশি  অস্থির
ক্লান্তিতে  দেহমন কাতর
প্রাণ যায় যায়।


সহায়ত্বের  কাছে  মিলেনি একমুঠো গুড়ের
খাবার স্যালাইনের সেবা!
দাতব্য বৈদ্যশালা।
জরাজীর্ণ পাটাতনে  জমেছে  শ্যাওলা
মাকড়শারজাল  বেঁধে  রেখেছে
পরিভ্রষ্ট  মস্তিষ্কের  তলে।


দীর্ঘশ্বাসের করুণ মৃদু  শব্দে
টিকটিকির  দ্রুত  প্রস্থান
সত্যের মোড়ক  উম্মোচন  হয়না
আড়াল হয়ে  রয়
বুকের ক্ষতে  গোপন  কষ্টগুলি।
______________
রচনাকালঃ১১/০৭/২০১৫ ইং
আরব আমিরাত ডুবাই।
ফেইসবুকে প্রকাশিত হয় ঠিক একই তারিখে।