সে এক ক্লান্ত গোধুলী বেলা
শিশুরা বন্ধ করছিল খেলা
পাখিরা ফিরছিল নীড়ে
নদীটা বইছিল ধীরে।।


লাল সূর্যটাও দেখা যাচ্ছিলনা আর
যেন আলোর বুকে আসছিল অন্ধকার
চাঁদটা যেন পাচ্ছিল যৌবন
শীতল হয়ে যাচ্ছিল পবন।।


ঠিক এমন সময় তুমি কোথা হতে
এলোচুলে হাটিতেছিলে এই পথে
দুষ্ট দমকা হাওয়া
তোমারে করেছিল ধাওয়া।।


আচল উড়িয়ে চলছিলে তুমি
দূর হতে দেখিছিলাম আমি
অল্প আলোয় ঝাপসা হয়ে গেলে
পাছে কিছু সৃতি রেখে ফেলে।।
সেদিনের পর কত আসিল গোধুলী বেলা
তুমি আসনা আর, আসি আমি একেলা।।