প্রভাতে ফুটিল ফুল অমল ধবল বিমল
রবির কিরণ আসি তাহারে গেল পরশি
দিয়ে গেল আশা,
আশীর্বাদে প্রাণ তাহার দিল ভরি -
‘পুষ্প তুমি, আলোকের বন্যা  
অপূর্ব অনন্যা
তোমাকে করিলাম দান
প্রভাতে আমার প্রথম কিরণ!’


আরো গেল বলে --
‘রয়েছে দিনের হেলা
আসিবে ঝড়ের বাতাস প্রবল
শাখা পড়িবে লুটিয়া
বনের তলে,
আসিবে বর্ষা, আসিবে আঁধার
কত আনাগোনা মিছে কামনা
আশা-হতাশায় বেদনা-সুখে
খেলার ছলে
ভ্রমর আসিয়া যত মধু নিবে তুলে।


‘সকলে নহে ভাল, কারো মনের গভীর ভীষণ কালো
তোমাকে ভরাবে বিষাদে
জীবন ভরাবে হাহাকারে
দেবে ফাঁকি
সকলি নিয়ে চিরতরে যাবে দূরে চলি
ভাসিবে অশ্রুজলে,
একাকী নিভৃত অবুঝ বেদনার মর্মতলে
নিষ্ঠুর শরের আঘাত রক্ত ঝরাবে বক্ষভেদী।


  
‘তবু  হইও না হতপ্রাণ
রাখিও মনে
এসেছে জগতে
হাসিতে গাহিতে
রহিতে অন্তরে অম্লান,
সকলে দিতে দান
ভরাতে জগৎ
চিরসুন্দর নির্মল উৎসব প্লাবনে,
এসেছো গাহিতে মুগ্ধ জীবনের অমর গান!’