সকলের মত সেও এসেছিল
নিষ্পাপ, ফুটেছিল ফুল
হৃদয়ে তার ছিল একই ছন্দ
রবির আলোতে সেও চেয়েছিল
আলোকিত হতে সবার মত, সেও চেয়েছিল
মাথা উঁচু করে চলতে সবার সমান ।


তবু জন্ম তার আজন্ম মিথ্যা
ভাগ্যের প্রহসনে –  
একই আলোবাতাসে সে দেখে
অভিশাপ, প্রকৃতির ষড়যন্ত্র
সারা জীবন। প্রতিকারহীন অবহেলায়
পথ চলার ক্লান্তি বড়ই  বিষণ্ণ
ব্যর্থতার দীর্ঘশ্বাসে অবসন্ন
তবু দয়া নেই নির্দয় বিধাতার।


এ কেমন লীলা, কেমন খেলা
একই নদী – তবু জীবনের দুই স্রোত?
কেন হাসি তার জন্মের নিমেশেই হল বাসি,
কেন নির্মল আশা ঝরে গেল
জীবনের উদ্বোধন ক্ষণে,
কেন সে আজও ফেরে ভিক্ষা করে
স্বর্গের নিষ্ফল করুণা,
কেন জন্ম তার এ ধরায় দূর্গত উপহাসে?  

পথে পথে মানবিকতা এখনো কেন
কাঁদিছে পরাভবে লাঞ্ছিত যন্ত্রণায়?