সোজা আর বাঁকা,চড়াই ও উৎরাই,
জীবনের রাস্তাটা মনে হয় এমনটাই!
মান অভিমান চাওয়া আর না পাওয়া,
হারিয়ে যাওয়া আর খুঁজে বের করা;
জন্মদিনের এটা নিশ্চয় শ্রেষ্ঠ পাওয়া।
কখনো মেঘের পেটে দেখ বৃষ্টির রাশি,
আবার কখনো চাঁদ আর সূর্যের হাসি।
নদী কখনো শুকিয়ে বালুকায় লুকায়,
কখনো দেখ তীর ভেঙে বন‍্যা ঘটায়।
মাঝি কি কখনো নৌ' ভাসিয়ে পালায়,
ঐ কালো ঝড়বৃষ্টি অথবা খরার কথায়?
মাঝি আর নৌকা ব‍্যবধান কি অনেকটা,
মাঝির কারণে ঐ নৌ পারা-পার করে!
দেখ জোয়ার-ভাঁটা ফায়দা আর ঘাটা,
জীবনের পথে কত বিচিত্র অভিজ্ঞতা!
গান গাইবে না তুমি আমার জন্মদিনে,
তবে গান ভুলে যাবে মাতনে কষ্ট হয়!
জীবনের রঙে ঐ অভিমান মিশে যার,
হোলীর আবিরে দুষ্ট ম‍্যাজেন্টের মতো;
ভুল না সত্যি তোমায় ভালোবাসি কত!
ভুলে যাও তুমি আজ ভুল শুদ্ধের কথা,
'ক্ষমা' যদি চাও তবে মনে লাগে ব‍্যাথা;
স্বগর্বে বল না কেন অধিকারের কথা,
জীবনে বেঁচে কেন আবার মৃত্যুর গাঁথা?
'অধম' বল কেন তুমি এই মিলনের বেলা,
পেয়েছ  কখনো আমার কাছে অবহেলা?
দুঃখ বয়ে জীবন চলি আলোর ইসারায়,
জন্মদিনের প্রদীপ তুমি, তুমিই উপহার;
সারা জীবন পাশে থেকো ঘুচিয়ে অন্ধকার।