জীবনানন্দ দাশ

জীবনানন্দ দাশ
জন্ম তারিখ ১৭ ফেব্রুয়ারি ১৮৯৯
জন্মস্থান বরিশাল, বাংলাদেশ
মৃত্যু ২২ অক্টোবর ১৯৫৪

জীবনানন্দ দাশ (জন্ম: ১৮ ফেব্রুয়ারি, ১৮৯৯, বরিশাল - মৃত্যু: ২২ অক্টোবর, ১৯৫৪, বঙ্গাব্দ: ৬ ফাল্গুন, ১৩০৫ - ৫ কার্তিক, ১৩৬১) বিংশ শতাব্দীর অন্যতম প্রধান আধুনিক বাংলা কবি। তিনি বাংলা কাব্যে আধুনিকতার পথিকৃতদের মধ্যে অগ্রগণ্য। মৃত্যুর পর থেকে শুরু করে বিংশ শতাব্দীর শেষ ধাপে তিনি জনপ্রিয়তা পেতে শুরু করেন এবং ১৯৯৯ খ্রিস্টাব্দে যখন তাঁর জন্মশতবার্ষিকী পালিত হচ্ছিল ততদিনে তিনি বাংলা সাহিত্যের জনপ্রিয়তম কবিতে পরিণত হয়েছেন। তিনি প্রধানত কবি হলেও বেশ কিছু প্রবন্ধ-নিবন্ধ রচনা ও প্রকাশ করেছেন। তবে ১৯৫৪ খ্রিস্টাব্দে অকাল মৃত্যুর আগে তিনি নিভৃতে ১৪টি উপন্যাস এবং ১০৮টি ছোটগল্প রচনা গ্রন্থ করেছেন যার একটিও তিনি জীবদ্দশায় প্রকাশ করেননি। তাঁর জীবন কেটেছে চরম দারিদ্রের মধ্যে। বিংশ শতাব্দীর শেষার্ধকাল অনপনেয়ভাবে বাংলা কবিতায় তাঁর প্রভাব মুদ্রিত হয়েছে। রবীন্দ্র-পরবর্তীকালে বাংলা ভাষার প্রধান কবি হিসাবে তিনি সর্বসাধারণ্যে স্বীকৃত। (উৎসঃ উইকিপিডিয়া)


Poetry RSS

এখানে জীবনানন্দ দাশ-এর ৩৪৮টি কবিতা পাবেন।

   
সার্চ করুন
শিরোনাম মন্তব্য
উদয়াস্ত
উন্মেষ
ঊনিশশো চৌত্রিশের
এই কি সিন্ধুর হাওয়া
এই জল ভালো লাগে
এই ডাঙা ছেড়ে হায়
এই নিদ্রা
এই পৃথিবীতে আমি অবসর নিয়ে শুধু আসিয়াছি
এই পৃথিবীতে এক স্থান আছে
এই পৃথিবীর
এই শতাব্দী-সন্ধীতে মৃত্যু
এই সব
এইসব ভাল লাগে
একটি নক্ষত্র আসে
একটি পুরোনো কবিতা
একদিন এই দেহ ঘাস
একদিন কুয়াশার এই মাঠে
একদিন খুঁজেছিনু যারে-
একদিন জলসিড়ি নদীর ধারে
একদিন পৃথিবীর পথে
একদিন যদি আমি
এখানে আকাশ নীল
এখানে ঘুঘুর ডাকে অপরাহ্নে
এখানে প্রাণের স্রোত আসে যায়
এ-সব কবিতা আমি যখন লিখেছি
ওগো দরদিয়া
কখন সোনার রোদ নিভে গেছে
কত দিন ঘাসে আর মাঠে
কত ভোরে- দু’-পহরে
কতদিন তুমি আর আমি এসে এইখানে বসিয়াছি
কতদিন সন্ধ্যার অন্ধকারে
কবি
কবিতা
কমলালেবু
কয়েকটি লাইন
কাউকে ভালোবেসেছিলাম ১১
কার্তিক মাঠের চাঁদ
কার্তিক-অঘ্রাণ ১৯৪৬
কার্ত্তিকের ভোর- ১৩৫০
কিশোরের প্রতি
কুড়ি বছর পরে
কেন মিছে নক্ষত্রেরা
কেমন বৃষ্টি ঝরে
কোথাও চলিয়া যাবো একদিন
কোথাও দেখি নি
কোথাও দেখিনি আহা এমন বিজন ঘাস
কোথাও মঠের কাছে
কোথায় গিয়েছে
কোনো এক ব্যথিতাকে
কোনোদিন দেখিব না তারে আমি

পেজটি শেয়ার করুন: