৬৮. কবিতার নাম : শেকলবন্দী
      কবি : রুহুল আমীন


"শেকলবন্দী" কবিতাটিতে কবি রুহুল আমীন সময় ও সভ্যতার চিরযাত্রার এক ছবি এঁকেছেন l


সময় অনাদি অনন্ত l এর কোনো শুরু নেই এর কোনো শেষ নেই l চিরপ্রসারিত এই সময় তার নিজ সৃষ্ট শিকলে নিজেই আবদ্ধ l এই মহাকালের নানা পর্বে যুগ যুগ ধরে মানবজাতি জন্ম নিচ্ছে, জীবন অতিবাহিত করছে, তারপর সেই মহাকালেই মিলিয়ে যাচ্ছে l এক মানবের জন্ম-মৃত্যুতে মানবসভ্যতা থেমে যায় না l এও এক চক্র l অনাদিকাল থেকে চলছে l
সময়কে আশ্রয় করে শেকলবাঁধা সময়ের মতো নিজেকেও দৃশ্য ও অদৃশ্য নানা কর্ম, স্বপ্ন, কর্তব্য এর বাঁধনে বেঁধে মানবজাতি তাঁর গন্তব্যের পথে চলেছে l যুগে যুগে দেশে দেশে সম্প্রদায়ে সম্প্রদায়ে এই গন্তব্য ভিন্ন থেকেছে l একটি ব্যক্তির জীবনের ক্ষেত্রে, তাঁর বয়সের পরিবর্তনে বা পরিস্থিতির পরিবর্তনে তাঁর লক্ষ্য পাল্টে পাল্টে যায় l
যেটা উল্লেখযোগ্য, কবিতার শুরুতেই বলা হয়েছে, মানুষের জীবন লক্ষ্যহীন নয় l সর্বদা তাঁর গন্তব্য নির্দিষ্ট করা থাকে l মানুষ জানে সে সময়ের দ্বারা আবদ্ধ l তাঁর আয়ু নির্দিষ্ট, তাঁর সামর্থ্য সীমিত - এর মধ্যে, তাঁর প্রাপ্ত সময়কালের মধ্যে নিজ লক্ষ্য পূরণে সে উদ্যোগী হয় l তাঁর একার লক্ষ্য অর্জনে সফল বা ব্যর্থ হওয়ার ওপর বিষয়টি থেমে থাকে না, বহু বহু বছর ধরে শতাব্দীর পর শতাব্দী ধরে গন্তব্যে পৌঁছনোর মানুষের এই প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে l জীবনের যখন শুরু, দিবসের যখন শুরু, সভ্যতার যখন শুরু, তখন গন্তব্য নিকটে l স্বল্প দূরত্বের সেই গন্তব্য পায়ে হেঁটে প্রাতভ্রমনেই অতিক্রম করা সম্ভব l কিন্ত সময় যতো এগোয়, বেলা যতো বাড়ে, বয়স যতো বাড়ে, সভ্যতা যতো এগোয়, লক্ষ্য কঠিন হয় l গন্তব্য দূর থেকে আরও দূরে চলে যায় l তখন পদব্রজে প্রাতভ্রমণ ছেড়ে মানুষ মহাকাশে পাড়ি দেয় l
এক ব্যক্তির জন্য যা সত্য, সমগ্র মানবজাতির জন্যও তা প্রযোজ্য l তার গমন সর্বদা স্বছন্দে চলে না l অন্তরায় সৃষ্টি হয় l গতি রুদ্ধ হয় l শ্লথ হয় l সমঝোতা করতে হয় l বিপ্লব ছেড়ে বিবর্তনের পথে হাঁটে মানুষ ও তার সভ্যতা l

এই সব কিছুর মধ্যে প্রকৃতির সকল জীব জৈবিক
ধর্ম পালন করে জগতে নতুন জীবনের আগমনের প্রবাহকে সচল রাখে l প্রকৃতি ঋতু পরিবর্তনের খেলায় মেতে ওঠে l শীতের আগমনে গাছ পত্রশূন্য হয় l পাতাহীন ন্যাড়া গাছ তার শাখা প্রশাখায় চন্দ্রবিন্দুর আকার নেয় l
স্নেহ প্রেম ভালোবাসার বন্ধনে জীবন প্রবাহ এগিয়ে চলে l সময় এগিয়ে চলে l শতাব্দীর পর কতো নতুন শতাব্দী জন্ম নেয় l
ছোট্ট কবিতাটিতে মানবসভ্যতার বিবর্তনের এক রূপক রূপরেখা পাই l
কবিকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন l