৫১. কবিতার নাম - রূপান্তর ক্রিয়া-অাঘাত ও ত্রিফলা
কবির নাম - ইথার


আলোচনা :
চারটি শ্রেণীতে বিভক্ত কবিতাটি l প্রথমে রূপান্তর ক্রিয়া-অাঘাত এবং তারপর ত্রিফলা ১,২, ও ৩ l
প্রথম ভাগে, রূপান্তর ক্রিয়া-অাঘাত উপ শিরোনামে যা আছে, সেখানে দেখছি চাল ও ভাত এর মধ্যে লেগেছে লড়াই l কে বেশী গুরুত্বপূর্ণ ? চাল ছাড়া তো ভাত হয় না l আবার চালকে রান্না করে ভাতে রূপান্তরিত করে না নিলে তা খাওয়া যায় না l এই রূপান্তর প্রক্রিয়ায় অগ্নিরূপ প্রেম ভালোবাসার ভূমিকা অনস্বীকার্য l
মোদ্দা কথা হল চাল গুরুত্বপূর্ণ  ভাতরূপে l আর ভাত ঋণী চাল - এর কাছে l চাল ভাতে পরিণত হলেই জগতের ক্ষুধা নিবৃত্তি হয় l চালের জন্ম সার্থক হয় l
এই রূপকের ব্যবহারের পর এসেছে হৃদয় প্রসঙ্গ l একটি বিচ্ছিন্ন হৃদয় এককভাবে সৃজনশীল, উৎপাদনক্ষম নয় l দুটি বিচ্ছিন্ন হৃদয়ের মধ্যে কোনটি বেশী গুরুত্বপূর্ণ এই লড়াই সেই চাল ও ভাতের লড়াইএর মতো l দুটি হৃদয় ভালোবাসার সম্পর্কে পাশাপাশি আসে l প্রেমের ক্ষুধা নিবৃত্তির মাধ্যমে হৃদয় রূপান্তরিত হয় l এখানে ভালোবাসার এই অনুভব আগুনের মতো, যা চালকে ভাতে রূপান্তরিত করেছে l এই রূপান্তরে মাছ চালের প্রতীক, পুরুষ বা নারী একটি হৃদয়ের প্রতিনিধি l রূপান্তরের প্রয়োজনীয়তা সেও জানে l রূপান্তরের উপাদান কি তাও সে জানে l এই রূপান্তরের জন্য প্রয়োজন লবণ, মরিচ, আগুন l এখানেও সৃষ্টির অনুসঙ্গ গর্ভযন্ত্রণা l একাকী পুরুষ রাতে অপেক্ষারত l স্তব্ধ রাতে প্রেয়সীর সাথে শিল্পসম প্রেম ভালোবাসার আগুনে দগ্ধ হয়ে প্রেমের ক্ষুধা নিবৃত্তি এবং নতুন সৃষ্টির ক্ষেত্র প্রস্তুতকরণ l


তৃতীয় ভাগে, "অহনা", এখানেও প্রেমের গুরুত্ব স্বীকার করা হলো l বেড়াতে যাওয়া হবে অর্থাৎ হৃদয়ের সাথে হৃদয়ের মিলন l এই মিলনের ফল একটি রূপান্তর l ফুল প্রস্ফুটিত l


শেষ অংশে, "ভালোবেসে  মালা পড়াও অাবার.", যে বিষয়টা স্পষ্ট করে তা হলো ভালোবাসা জন্ম প্রদানক্ষম, নতুন প্রাণ সৃষ্টির উৎস l এর জন্য ভালবাসা অর্থাৎ নারীসত্তা পূর্ণবয়স্ক পাথররূপ পুরুষ সঙ্গীর আগুনে নিজেকে খুশিমনে ভক্ষণ করবে l ইঙ্গিত স্পষ্ট l কবিতাটির চারটি ভাগেই সাধারন যে বিষয়টি পাই তা হলো সৃষ্টিতত্ত্ব, সৃষ্টিরহস্য, তার কার্যকারণ সম্পর্ক, নতুন মানব-প্রাণ সৃষ্টির ব্যাকরণ, এর সংশ্লিষ্ট দৈহিক তাপ ও প্রেম ভালবাসার ভূমিকার রূপক উপস্থাপন l সৃষ্টির এই মিলন বিষ-হরা l আঘাত আছে, কষ্ট আছে, অশ্রুপাত আছে l কিন্তু সমস্ত আঘাত অতিক্রম করে, তাকে ক্ষমা করে দিয়ে, রক্তপাত অতিক্রম করে কুঠারসম ভালোবাসা বিজয়ী হয় l উচ্চ স্বরে, স্বগর্বে সৃষ্টিরূপ গোলাপকে মেলে ধরে l
একক হৃদয় যার রূপক হিসাবে এসেছে চাল, কাঁচা মাছ - শূন্যের সামিল l আগুন, প্রেম, ভালোবাসা অনুঘটক l রান্না, প্রণয় এর মাধ্যমে এদের কাছাকাছি আসা l এক হৃদয় অন্য হৃদয়ে মিশে একাত্ম l ফলে রূপান্তর l কার্যকারন সম্পর্কে সৃষ্টি  l জীবন, জগৎ রূপ, রঙ, রসে ভরে ওঠে l


কবিতাটির জন্য কবিকে শুভেচ্ছা জানাই l