১. কবিতার নাম - রাষ্ট্রদশা
কবি - শাহারিয়ার ইমন
http://www.bangla-kobita.com/gaziem1/post20170402041901/


আলোচনা :
যে কোনো ব্যবস্থার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করা মানবজাতির অধিকার l প্রতিবাদের ধরন, মান অনেক l যিনি প্রতিবাদ করছেন, যে মঞ্চ তিনি প্রতিবাদের জন্য ব্যবহার করছেন, যে ব্যবস্থার বিরুদ্ধে তিনি প্রতিবাদটা করছেন - তার ওপর নির্ভর করে প্রতিবাদের ধরন ও মান l প্রতিবাদের জন্য যে বাক্যবন্ধ ব্যবহৃত হবে তাও নির্ভর করে উল্লিখিত বিষয়গুলির ওপর l মিছিলে প্রতিবাদের জন্য যে জাতীয় শব্দবন্ধগুলি ব্যবহৃত হয়, কবিতা মাধ্যমে প্রতিবাদ ঘোষণার ক্ষেত্রে তার সব শব্দবন্ধগুলি আনা যায় না l "সব শালা চোর", কবিতায় এজাতীয় অশ্লীল ভাষার প্রয়োগ অনুচিত মনে হয়েছে l
কবিতা একটি অত্যন্ত শক্তিশালী শৈল্পিক মাধ্যম l কবিতায় ব্যবহৃত শব্দাবলী কবির ব্যবহার নৈপুণ্যে তার নিজের অর্থের সীমা অতিক্রম করে অসাধারণ শক্তিশালী কালজয়ী অর্থের দ্যোতনা সৃষ্টি করে l ফলে প্রতিবাদের মাধ্যম হিসাবে যখন কবিতাকে ব্যবহার করা হয়, তখন কবিতার মর্যাদার যে নিজস্ব গন্ডি আছে, তাকেও মানতে হয় l পৃথিবীর ইতিহাস বারে বারে প্রমাণ করেছে কবিতায় ও সাহিত্যে সুপ্রযুক্ত ভাষার কুশল প্রয়োগ নানা বিপ্লব সংঘটিত করেছে l ফলে কবিতা মাধ্যমে কোনো প্রতিবাদ করার সময় ভাষা ও শব্দের ব্যবহার সম্বন্ধে কবিকে সতর্ক হতে হবে l গলির মোড়ে অশিক্ষিত লোকেরা উত্তেজিত অবস্থায় ঝগড়া, বাত-বিতন্ডার সময় যে অশ্লীল শব্দাবলী ব্যবহার করে, তা কখনও কবিতার ভাষা হতে পারে না l প্রতিবাদের ভাষা কবিতার ক্ষেত্রে হবে শ্লীল, রুচিসম্মত, শৈল্পিক - এবং তার ক্ষমতা ও প্রভাব হবে শব্দাবলীর সাধারন অর্থের সীমার অতিরিক্ত অনেক অনেক বেশি l কবিতার শেষ অংশে
"দেশপ্রেম, চেতনা
এসব নিয়ে কি বলবে ভাই ?
..........................................
এসব বেচেই তো দেশ চালাই l"
উদ্ধৃত অংশটি satire রূপে কবিতায় ব্যবহারোপযোগী একটি শক্তিশালী প্রতিবাদ হয়েছে l কবিকে ধন্যবাদ কবিতায় এরকম শক্তিশালী, শৈল্পিক শব্দ ব্যবহারের জন্য l


দ্বিতীয়ত, এখানে প্রতিবাদ হচ্ছে শাসক শ্রেণীর বিরুদ্ধে l শাসক শ্রেণী যদি অসাধু হয়, গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় সুযোগ আছে নির্বাচন ব্যবস্থায় অংশ নিয়ে অসাধু সরকার ও তার দলকে পরাজিত করে সাধু দলকে ভোট দিয়ে সরকারে আনা l যদি সব রাজনৈতিক দলই অসাধু বলে মনে হয়, তাহলে হতাশায় ভুগে রাষ্ট্র ব্যবস্থার প্রতি অনাস্থা জ্ঞাপন করে নেতিবাচক প্রতিবাদ করলে নৈরাজ্যকে আহ্বান করা হয় l আর নৈরাজ্য ব্যবস্থা হলো সর্বনিকৃষ্ট শাসনব্যবস্থার থেকেও নিকৃষ্ট l
শুধু অপরকে দোষ দিয়ে মুক্তি নেই l এগিয়ে আসতে হবে l হাল ধরতে হবে l ভালো লোকেদের এগিয়ে আসতে হবে l ভালো লোকেদের রাজনীতির হাল ধরতে হবে l ইংরাজিতে একটি কথা আছে, "If the good do not come forward to rule, they should be prepared to be ruled by the bad people" l সুতরাং শুধু সমালোচনা করলে হবে না বন্ধু, বুকে দম বেঁধে এগিয়ে আসতে হবে l
আলোচনায় অংশ নিয়ে কবিতায় ব্যবহৃত ভাষার শালীনতা প্রসঙ্গে বলতে বলতে কবিতাটির বার্তা প্রসঙ্গেও কিছু কথা হয়ে গেল l
যাই হোক, ভবিষ্যতে কবির কাছ থেকে আরও উন্নত ও রুচিশীল কবিতার প্রতীক্ষায় থাকলাম l শুভেচ্ছা থাকলো l