আমার রাধিকা ,অন্নের তরে সারাদিন পথে ঘুরে ,
আমার রাধিকা ,অন্নের তরে ভিক্ষাকরে দুয়ারে !
আমার রাধিকা ,রজনী - প্রভাত ,পাথর ভাঙ্গার কাজে ,
আমার রাধিকা ,সারারাত কাটে অনাহারে ,রাত জেগে !
আমার রাধিকা ,লোকের বাড়ী এঁঠো বাসন মাজে ,
আমার রাধিকা ,এঁঠো খাবার খায় সকল কাজের শেষে !
আমার রাধিকা ,ক্ষিদায় করে ছট পট বিছানায় ,
আমার রাধিকা ,ঘুম আসেনাকো জাগিয়াই শুয়ে রয় !
আমার রাধিকা ,নেইকো বস্ত্র লজ্জার নিবারন ,
আমার রাধিকা ,অনাহারে থাকে ঘরেতে অরন্ধন !
আমার রাধিকা ,জীর্ণ বস্ত্রে এরবাড়ী ,ওর বাড়ী ,
আমার রাধিকার ,জোটেনা বস্ত্র ,মোটা একখানা শাড়ী !
আমার রাধিকা ,এমনি করেই রোজদিন কেটে যায় ,
আমার রাধিকা ,সন্ধ্যায় ফেরে একবুক নিরাশায় !
আমার রাধিকা ,রাস্তায় বসে ,মাথার উপর নেই ছাদ ,
আমার রাধিকা ,রোগ -যন্ত্রনায় কেবলই  আর্তনাদ !
আমার রাধিকা , পথে ঘুরে ,পেটে নাই তার ভাত ,
আমার রাধিকা ,নেই ঘর-বাড়ী ,ফুটপাতে রাত !
আমার রাধিকা , অনাহারে থেকে ,রোগ যন্ত্রনায় ভোগে ,
আমার রাধিকা ,রাস্তায় পড়ে ,ওষুধ না পায় রোগে !
আমার রাধিকা ,রাস্তার পাশে খায় কত ঝাটা ,লাথি ,
আমার রাধিকা ,সন্ধ্যা বেলায় , না জ্বলে সাঁঝের বাতি !
আমার রাধিকা ,রাস্তার পড়ে করে কত ছটপট ,
আমার রাধিকা ,না দেখে কেহই,দেয়না একটু জল !
আমার রাধিকা ,রাস্তার পাশে দাঁতে না অন্ন কাটে ,
আমার রাধিকা ,পাথর ভাঙে ,রাস্তার ফুটপাতে !
আমার রাধিকা ,রাস্তায় পড়ে ফেলেশেষ নিঃশ্বাস ,
আমার রাধিকা , ছিল না কিছুই ,ছিল বুকভরা হতাশ্ !


                    ************


বিকেল - ৪:২৫ মিঃ ,কলকাতা  
          ০৭ / ০৫ /২০১৭ ,রবিবার |